এ নীল মনিহার- লাকী আখন্দ

শৈশবেই সঙ্গীত শিল্পী হিসেবে আত্মপ্রকাশ করেন লাকী আখন্দ মাত্র ১৮ বছর বয়সে এইচ.এম.ভি. পাকিস্তানে সুরকার হিসেবে তালিকা ভুক্ত হন।
সুরকার হিসেবে আরো কাজ করেছেন এইচ. এম.ভি. ভারত এবং স্বাধীন বাংলা বেতার কেন্দ্রেও। তারপর বাংলাদেশের স্বাধীনতার পর নতুন উদ্যমে বাংলা গান নিয়ে কাজ শুরু করেন। তাঁর নিজের সুর করা গানের সংখ্যা তাঁর কথায় দেড় হাজারেরও বেশি।অসংখ্য কালজয়ী গানের স্রষ্টা লাকী আখন্দ। তাঁর গাওয়া ও সুরের উল্লেখযোগ্য গানগুলো হলো ‘এই নীল মণিহার’, ‘আমায় ডেকো না’, ‘আগে যদি জানতাম’, ‘আবার এলো যে সন্ধ্যা’, ‘মা-মনিয়া’, ‘কবিতা পড়ার প্রহর এসেছে’, ‘বিতৃষ্ণা জীবনে আমার’, ‘যেখানে সীমান্ত তোমার’, ‘ভালোবেসে চলে যেও না’, ‘লিখতে পারি না কোনো গান’, ‘কি করে বললে তুমি’ ইত্যাদি।বাঙলা গানের এ গুনি শিল্পি 2017 সালের 21 এপ্রিল মারা যান। ল্পির প্রতি প্রদ্ধা জানিয়ে তাঁর স্ব-কন্ঠে নির্বাচিত কিছু গান তুলে ধরা হল।

Tunes of Nilufar Yesmin (নীলুফার ইয়াসমিন)

শিল্পি নীলুফার ইয়াসমিন গেয়ে গেছেন কিছু অবিস্মরনীয় অমর গান।ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের এ সংগীত শিক্ষক সংগীতের জন্য ছিলেন আজীবন নিবেদিত। তিনি সংগীত পরিবারেরই মানুষ। বোন সাবিনা ইয়াসমিনের মত এতো জনপ্রিয় নন। কিন্তু কালিক হিসেবে তার গানগুলোর কাছে বাংলার মানুষ ফিরে ফিরে আসতে বাধ্য। রুচিবান বাঙালী মাত্র এই অজর অমর গানে মুগ্ধ হতে বাধ্য।